এশিয়া কাপ হবে শ্রীলংকাতেই

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শ্রীলংকাতেই বসছে ১৮তম এশিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। তবে পূর্বের সূচিতে কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। তিনদিন এগিয়ে ২৪ আগস্ট থেকে এশিয়া কাপ শুরু করতে চায় শ্রীলংকা। পূর্ব ঘোষিত সূচিতে ২৭ আগস্ট থেকে শুরুর কথা এশিয়া কাপ।

অর্থনৈতিক সঙ্কট ও রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে এশিয়া কাপ শ্রীলংকায় না হওয়া বিষয় নিয়ে গুঞ্জন ছিল। শ্রীলংকায় না হলে বাংলাদেশে এশিয়া কাপ আয়োজন হতে পারে বলেও আলোচনা চলছিলো।

তবে নিজেদের মাঠেই এশিয়া কাপ শুরু করতে চায় শ্রীলংকা। ২৪ আগস্ট শুরু করার বিষয়ে পাকিস্তানের সমর্থনও পয়েছে শ্রীলংকা বোর্ড।

বোর্ডের একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘আন্তর্জাতিক সূচিতে সংঘর্ষ এড়াতে পাকিস্তানসহ অংশগ্রহণকারী কয়েকটি দল সূচিতে কিছুটা পরিবর্তনের অনুরোধ জানিয়েছে। সেপ্টেম্বরের শেষদিকে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাতটি টি-টুয়েন্টি খেলবে পাকিস্তান।’

ঐ সূত্র আরও বলছে, ‘ ২৪ আগস্ট শুরু হয়ে ৭ সেপ্টেম্বও এশিয়া কাপ শেষ হলে পাকিস্তানের জন্য সুবিধা হবে। কারন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য সঠিক সময়ে দেশে ফিরতে পারবে তারা।

২০২০ সালে শ্রীলংকার মাটিতেই হবার কথা ছিলো টুর্নামেন্টটি। কিন্তু করোনার কারনে সেটি স্থগিত হয়েছিল। ২০২১ সালে আয়োজনের কথা থাকলেও তা বাতিল হয়। এরপর আগামী আগস্টে শ্রীলংকায় আয়োজনের সিদ্বান্ত নেয় এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)।

এশিয়া কাপে মোট ছয়টি দল অংশ নিবে। স্বাগতিক শ্রীলংকাসহ বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং বাছাই পর্ব থেকে একটি দল। এশিয়া কাপ সাধারণত ওয়ানডে ফরম্যাটেই হয়ে থাকে। তবে ২০১৬ সালে প্রথম টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হয়েছিলো। ২০১৮ সালে সর্বশেষ এশিয়া কাপে হয়েছিলো ওয়ানডে ফরম্যাটে। ঐ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো ভারত। রানার্স-আপ হয় বাংলাদেশ।

এ বছরের এশিয়া কাপ হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। কারন চলতি বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে এশিয়া কাপ আয়োজনের সিদ্বান্ত নেয়া হয়।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *